এপ্রিল ১৭, ২০২৪ ১২:৫৪ অপরাহ্ণ

সরকারের পদত্যাগের দাবি উদ্ভটঃ ওবায়দুল কাদের

  1. ইমরুল কায়েস।

আগামী সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে সরকারের পদত্যাগের দাবি উদ্ভট বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ‘সোমালিয়ার মতো দেশে যেখানে প্রতি ৮৬ সেকেন্ডে একজন করে লোক মারা যাচ্ছে, সেখানেও এমন দাবি নেই। পাকিস্তান ছাড়া তত্ত্বাবধায়ক সরকার আর কোনো দেশে নেই।’

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, ‘আমাদের সামনে অনেক চ্যালেঞ্জ। একদিকে রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে ইউরোপ-আমেরিকার পাল্টাপাল্টি নিষেধাজ্ঞা। আইএমএফের প্রতিবেদন অনুযায়ী বিশ্বের এক-তৃতীয়াংশ দেশ মহামন্দার দিকে যাচ্ছে। আমাদের প্রতিবেশি দেশ শ্রীলঙ্কার রিজার্ভ তলানিতে। পাকিস্তানের রিজার্ভ হাফ মিলিয়ন ডলারে চলে এসেছে। সেখানে বাংলাদেশের মতো উন্নয়নশীল দেশে রিজার্ভ ৪৮ ছিল, সেটা এখন ৩৪ মিলিয়ন ডলারে এসেছে। আমি মনে করি আমরা স্টেবল পজিশনে আছি।’

তিনি বলেন, ‘পাঁচ বছরের মতো আমদানি করার রিজার্ভ আমাদের রয়েছে। সামনে এ পরিস্থিতি আরও ভালোর দিকে যাবে। বৈশ্বিক সংকটে আমরা বিপদে আছি এ কথা সত্য। গ্যাসের সংকট, জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধিতে সবার কষ্ট হচ্ছে। বাংলাদেশ এখনো পরিস্থিতি সামাল দিয়ে যাচ্ছে। ক্রাইসিস ম্যানেজার বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার জন্য এটা সম্ভব হয়েছে।’আজ শুক্রবার দুুপুরে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসের সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমাদের গণতন্ত্র ত্রুটিমুক্ত- এ কথা আমি বলব না। আমাদের গণতন্ত্র এখন বিকাশমান পর্যায়ে আছে। এটা ক্রমান্বয়ে আমরা সংশোধন করতে পারব। এটা নিয়ে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। বঙ্গবন্ধু হত্যার পর ২১ বছর দেশে গণতন্ত্র ছিল না। সেই গণতন্ত্র ফিরিয়ে এনেছেন তার কন্যা শেখ হাসিনা।’

এ সময় চট্টগ্রামের কর্ণফুলী তলদেশে টানেল নির্মাণ, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক সম্প্রসারণসহ বিভিন্ন প্রকল্প নিয়ে সরকারের উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরেন তিনি।

কর্ণফুলী টানেলের ৯৫ দশমিক ৫ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বর্তমানে টানেলের ভেতরে ইলেকট্রনিক ও মেকানিক্যাল কাজ চলছে। টানেলের সুরক্ষার জন্য স্ক্যান সিকিউরিটি মেশিন বসানো হবে। দুর্ঘটনা যেন না হয় সেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উক্ত সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ও আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দীন চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ সালাম, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এটিএম পেয়ারুল ইসলাম প্রমুখ।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn