মে ২০, ২০২৪ ১:৫২ পূর্বাহ্ণ

আওয়ামী লীগ মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বেমালুম ভুলে গিয়েছে বললেন মির্জা ফখরুল ইসলাম

ইমরুল কায়ে,  ঢাকা।

আওয়ামী লীগ যে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা বলে সেই চেতনাকে তারা বেমালুম গিলে ফেলেছে, নষ্ট করে ফেলেছে, ধ্বংস করে ফেলেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘আমাদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ছিল একটা মুক্ত সমাজ, একটা গণতান্ত্রিক সমাজ। সেই লক্ষ্যেই আমরা সংগ্রাম করছি। সেই সংগ্রামে ইতিমধ্যে আমাদের ১৫ জন নেতাকর্মী শাহাদাৎ বরণ করেছেন।’

আজ শনিবার (১৪ জানুয়ারি) নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল আরো বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকারের বড় ব্যর্থতা তারা এদেশের অর্থনীতিকে ধ্বংস করে দিয়েছে। দুর্নীতিতে খেয়ে ফেলেছে। বিচার বিভাগকে তারা স্বাধীনভাবে কাজ করতে দিচ্ছে না এবং সব জায়গায় দলীয়করণ করে ফেলেছে। এ অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে বিএনপিসহ অনান্য রাজনৈতিক দলগুলো ১০ দফা কর্মসূচি পালন করছে৷ পুরো জাতি আজকে এই ১০ দফা পালনে নেমে পড়েছে।’

 

আওয়ামী লীগের নির্যাতনের মাত্রা যত বাড়ছে মানুষ তত দৃঢ় হচ্ছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘এই ১০ দফার মাধ্যমে সত্যিকার অর্থে একটা গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করতে চাই। প্রতিদিন অত্যাচার নির্যাতন মাত্রা বাড়ছে। যত বাড়ছে নির্যাতনের মাত্রা ততো মানুষ আরও দৃঢ় হচ্ছেন, শক্ত হচ্ছেন। দৃঢ়তার সঙ্গে এই ফ্যাসিবাদী সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনে রাজপথে নামছে।‘

জিয়াউর রহমান বিভাজনের রাজনীতি বাদ দিয়ে ঐক্যের রাজনীতি শুরু করেছিলেন মন্তব্য করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘বহুদলীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় রাজনৈতিক দলগুলোকে ঐক্যবদ্ধ করেছিলেন জিয়াউর রহমান। তিনি বিভাজনের রাজনীতি বাদ দিয়ে ঐক্যের রাজনীতি শুরু করেছিলেন। আজকে দুর্ভাগ্যজনক এবং ইচ্ছেকৃত ভাবে আওয়ামী লীগ সেই অবস্থার পরিবর্তন ঘটিয়ে একদলীয় শাষন ব্যবস্থা চাপিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছে।‘

আগামী ১৯ জানুয়ারি বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের জন্মদিন উপলক্ষে বিএনপির নানা কর্মসূচির ঘোষণা দিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বর্তমান পরিপ্রেক্ষিতে জিয়াউর রহমান অন্তত প্রাসঙ্গিক শুধু নয়, অতন্ত প্রয়োজনীয় একজন নেতা। সেজন্য বিএনপির তার জন্মদিন স্মরণ করে রাখতে একটা বড় কর্মসূচির আয়োজন করছি।’

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি কেন্দ্রীয় নেতারা।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn