এপ্রিল ১৭, ২০২৪ ১২:৫৬ অপরাহ্ণ

১১ জুন জাতীয় পাহাড় রক্ষা দিবস ঘোষণার দাবি

ইবনে মইন।

পাহাড় ধসে চট্টগ্রামে ও তিন পার্বত্য জেলায় নিহতদের স্মরণে এবং ১১ জুনকে জাতীয় পাহাড় রক্ষা দিবস ঘোষণার দাবিতে পিপল’স ভয়েস ও বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরামের আয়োজনে মোমবাতি প্রজ্বলন ও নাগরিক সমাবেশ গতকাল রোববার অনুষ্ঠিত হয়েছে। সমাবেশে বক্তারা বলেন রাজনৈতিক সদিচ্ছার অভাবে এবং প্রশাসনিক নির্লিপ্ততায় পাহাড় কাটা থামছে না। পাহাড় ধসে প্রাণহানি ঠেকাতে হলে আগে পাহাড় কাটা বন্ধ করতে হবে। আর পাহাড় কাটা বন্ধে সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর উদাসীনতা দূর করতে কঠোর কর্মসূচির কোনো বিকল্প নেই।

নাগরিক সমাবেশ শেষে ২০০৭ সালে চট্টগ্রামে পাহাড় ধসে নিহত ১২৭ জন এবং ২০১৭ সালে রাঙামাটিতে পাহাড় ধসে নিহত ১৩০ জনসহ সকল পাহাড় ধসে নিহতদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। এরপর মোমবাতি প্রজ্বলন করা হয়।

নাগরিক সমাবেশে পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদ চট্টগ্রামের সভাপতি ডা. একিউএম সিরাজুল ইসলাম বলেন, রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত ও প্রশাসনিক উদ্যোগ ছাড়া পাহাড় রক্ষা হবে না। আমরা বহু বছর ধরে পাহাড় রক্ষার দাবিতে আন্দোলন করছি। কিন্তু কারো টনক নড়ছে না।

পিপল’স ভয়েসের সভাপতি শরীফ চৌহানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মুহাম্মদ আতিকুর রহমানের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উদীচী চট্টগ্রাম জেলা সংসদের সভাপতি জসিম চৌধুরী সবুজ, আইইবি চট্টগ্রাম কেন্দ্রের সাবেক সভাপতি প্রকৌশলী দেলোয়ার মজুমদার, অ্যাডভোকেট প্রদীপ কুমার চৌধুরী, রাশেদ হাসান, আলীউর রহমান, অধ্যাপক ইউনুস হাসান, মোস্তফা কামাল যাত্রা, মনসুর মাসুদ, উৎপল বড়ুয়া, মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম, নজরুল ইসলাম মান্না, হেলাল উদ্দিন, মার্গারেট মনিকা জিনস, নরেশ চাকমা, লামিও মারমা।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn