এপ্রিল ১৪, ২০২৪ ৮:২৯ পূর্বাহ্ণ

বাড়বকুণ্ড পাহাড়ে বাগান মালিকের লাশ উদ্ধার

ইসকান্দার খান  জিসান।

সীতাকুণ্ডের গহীন পাহাড় থেকে মো. এরশাদ (৪২) নামে একজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল শনিবার বিকাল ৫টায় উপজেলার বাড়বকুণ্ড ইউনিয়নের নতুন পাড়া থেকে তিন কিলোমিটার দূরে পাহাড়ের নিজের কলাবাগান থেকে পুলিশ তার লাশটি উদ্ধার করে। নিহত এরশাদ নতুনপাড়া এলাকার নুর বক্সের পুত্র। পাহাড়ে লাশ পড়ে থাকার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান সীতাকুণ্ড সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) নায়হানুল বারী ও সীতাকুণ্ড থানার ওসি তোফায়েল আহমেদ। তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শনের পাশাপাশি নিহতের লাশের বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করেন। পরে সুরতহাল প্রতিবেদন শেষে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ওসি তোফায়েল আহমেদ জানান, নিহত ব্যক্তির শরীরের বিভিন্ন স্থানে গভীর ক্ষতচিহ্ন রয়েছে। তার দুই হাত ও দুইপা ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়ার পাশাপাশি শরীরের বিভিন্ন স্থানে আগুন দিয়ে ঝলসে দেওয়া হয়েছে। প্রাথমিকভাবে মনে হয়েছে লোহার রোড দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে তাকে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে বেশকিছু আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে।

CIU-JOB-FAIR

নিহত এরশাদের চাচা রহিম উল্লাহ বলেন, প্রতিদিনের মত গতকাল সকালে এরশাদ পাহাড়ে চলে যায়। বিকালে খবর পাই, তাকে সেখানে খুন করা হয়েছে। তবে তার সাথে কারো কোনো বিরোধ ছিল না।

নতুনপাড়া গ্রামের ইউপি সদস্য মো. সোহেল জানান, নিহতের বাড়ি তার বাড়ির পাশেই। বাড়বকুণ্ড পাহাড়ে এরশাদের নিজস্ব বাগান রয়েছে। তাকে কে বা কারা হত্যা করেছে, তা বুঝা যাচ্ছে না।

ওসি তোফায়েল আহমেদ  চট্রলার  কণ্ঠকে জানান, নিহত ব্যক্তির নামে সীতাকুণ্ড থানায় মাদক কারবার ও অপহরণের অভিযোগে বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে। মাদক কারবার নিয়ে ওই বাগানে একটি সন্ত্রাসী গ্রুপ ছিল। ওই সন্ত্রাসী গ্রুপের সাথে মতবিরোধের কারণে এ হত্যাকাণ্ড হতে পারে। তারপরও হত্যার সঠিক কারণ নিশ্চিতে ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ চমেক হাসপাতালে মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের পর হত্যার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn