এপ্রিল ১৪, ২০২৪ ৭:০৬ পূর্বাহ্ণ

১৭৫ কোটি টাকা ব্যয় করে চাঁদগাওয়ে নির্মিত হবে নলেজ পার্ক

ইমরান নাজির

প্রায় ১৭৫ কোটি টাকা ব্যয়ে চট্টগ্রামের চাঁদগাঁওয়ে  নির্মিত হতে যাচ্ছে নলেজ পার্ক  এ উপলক্ষে নগরের শিল্পকলা একাডেমিতে আয়োজিত আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী বলেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের প্রতিযোগিতা মোকাবেলায় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে আইওটি, রোবোটিক্স, সাইবার সিকিউরিটিসহ উচ্চপ্রযুক্তি নিয়ে কাজ করার লক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর স্থাপন করা হচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে বর্তমানে চুয়েটে দেশের প্রথম বিশ্ববিদ্যালয় ভিত্তিক পূর্নাঙ্গ আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর স্থাপন করা হয়েছে। উদ্বোধনের পর মাত্র এক বছরেই সেখানে বেশ কিছু আইটি প্রতিষ্ঠান ও স্টার্টআপকে স্পেস বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে।

nagad

তিনি আরও বলেন, ‘সিংগাপুর-ব্যাংকক মার্কেটের ঊর্ধ্বমুখী সম্প্রসারণের মাধ্যমে নির্মিত বীর মুক্তিযোদ্ধা লেফটেন্যান্ট শেখ জামাল সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে বাণিজ্যিক কার্যক্রম পূর্ণদ্যোমে চলছে। চান্দগাঁওয়ে এই নলেজ পার্কের পাশেই শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং এন্ড ইনকিউবেশন সেন্টার নির্মাণ প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে। চট্টগ্রামে বাস্তবায়িতব্য চারটি প্রকল্পের বাকি দুটি প্রকল্প সম্পন্ন হলে বন্দর নগরী ও দেশের বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রাম আইটি বিজনেস হাব হিসেবে গড়ে উঠবে।’

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন, প্রতিযোগিতার এই যুগে আমাদের তরুণদের টিকে থাকতে হলে প্রযুক্তি শিক্ষার বিকল্প নাই। সরকার এজন্যই একটি প্রযুক্তি নির্ভর জাতি গড়ে তুলতে কাজ করে চলেছে। এখন থেকে আর চাকরির পেছনে ছুটতে হবে না, নিজেরাই উদ্যোক্তা হয়ে মানুষকে চাকরি দিবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম-৮ আসনের সংসদ সদস্য নোমান আল মাহমুদ বলেন, চট্টগ্রামের উন্নয়নে আইসিটি বিভাগ থেকে বেশ কিছু প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে, যা বাস্তবায়িত হলে চট্টগ্রাম দেশের অন্যতম ডিজিটাল সিটি হিসেবে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে বলে আমারা দৃঢ়ভাবে আশাবাদী।

প্রসঙ্গত, এই ‘নলেজ পার্ক’স্থাপনের কাজ শেষ হলে প্রায় এক হাজার মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। এছাড়া প্রকল্পের আওতায় প্রতি বছর তিন হাজার জনকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

আইসিটি সচিব শামসুল আরেফিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ইন্ডিয়ান হাইকমিশনার প্রণয় কুমার ভার্মা সম্মানিত অতিথি ছিলেন। বক্তব্য দেন সংসদ সদস্য নোমান আল মাহমুদ, বাংলাদেশ হাইটেক পার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জিএসএম জাফরুল্লাহ, জেলা প্রশাসক আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান, প্যানেল মেয়র গিয়াস উদ্দিন প্রমুখ।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn