ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২৪ ১২:২৭ পূর্বাহ্ণ

সিআরবির জামদানি মেলা বন্ধ করে দিল পুলিশ

 

ইমরান নাজির

 

নানা শ্রেণি-পেশার মানুষের প্রতিবাদের মুখে সিআরবির শিরীষতলার মাঠে আয়োজন করা মাসব্যাপী জামদানি মেলার অনুমতি বাতিল করেছে নগর পুলিশ। পুলিশ অনুমতি বাতিল করার পর গতকাল সোমবার থেকে মালামাল সরিয়ে নেওয়া শুরু করেছেন মেলার বিভিন্ন স্টলে অংশ নেওয়া ব্যবসায়ীরা।

 

পুলিশ কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, অনুমতি দেওয়ার আগে মেলা প্রাঙ্গণে যথেষ্ট ফাঁকা জায়গা, আলাদা পার্কিং রাখাসহ বেশকিছু শর্ত দেওয়া হয়েছিল আয়োজকদের। কিন্তু এসব শর্ত ভঙ্গ করায় রবিবার রাতে সিএমপি কমিশনার মেলা বন্ধ করে দিতে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নির্দেশনা প্রদান করেন।

 

এরপর নগর পুলিশের সংশ্লিষ্ট শাখার পক্ষ থেকে মেলার আয়োজক মাজেদ সর্দ্দারকে পুলিশের এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দেওয়া হয়। পুলিশের নির্দেশনা পেয়ে সোমবার সকাল থেকেই সিআরবির শিরীষতলা মাঠ থেকে মালামাল সরিয়ে নেওয়া শুরু করেন মেলার বিভিন্ন স্টলে অংশ নেওয়া ব্যবসায়ীরা।

 

কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহেদুল কবীর চট্টলার কণ্ঠকে  বলেন, শর্ত ভঙ্গ করায় শিরীষতলার মাঠে আয়োজন করা মেলার অনুমতি বাতিল করেছে সিটিএসবি। আয়োজকদের দ্রুত মালামাল সরিয়ে নিতে বলা হয়েছে। সোমবার সকাল থেকেই তারা মালামাল সরিয়ে নেওয়ার কাজ করছেন।

 

নগরীর মাঠগুলো যখন শিশু-কিশোরদের খেলার জন্য উন্মুক্ত করে দেয়ার দাবি জোরদার হচ্ছে, তখন নতুন করে সিআরবির শিরীষতলার মাঠটি দখল করে একের পর এক মেলা আয়োজন করায় প্রতিবাদ জানিয়ে আসছিলেন নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ। সর্বশেষ গত ৮ সেপ্টেম্বর এই মাঠে শুরু হওয়া মাসব্যাপী দেশীয় পণ্য ও জামদানি মেলা বন্ধে প্রশাসনকে দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি জানিয়ে আসছিলেন তারা।

 

তাদের দাবি, শিরীষতলার মাঠে একের পর এক মেলার আয়োজন করায় শুধু শিশু-কিশোররা খেলাধুলা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে না, চট্টগ্রামের ফুসফুস হিসেবে পরিচিত সিআরবির প্রাকৃতিক পরিবেশও নষ্ট হচ্ছে। সবুজের সমারোহে নগরবাসীর হাঁটাচলায় বিঘœ ঘটছে। সিআরবিতে প্রাকৃতিক পরিবেশে সময় কাটানোর সুযোগ সীমিত হয়ে আসছে। মেলাকে কেন্দ্র করে নানা অস্থায়ী স্থাপনা নির্মাণ করায় সিআরবির পরিবেশ দূষণ হচ্ছে।

 

এদিকে সিআরবির শিরীষতলার মাঠকে বাণিজ্যিকীকরণের প্রতিবাদে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে নাগরিক সমাজ, চট্টগ্রাম। গতকাল সোমবার সিআরবিতে এই অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন তারা। এ সময় নাগরিক সমাজ, চট্টগ্রামের সদস্য সচিব ও নগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সদস্য  এডভোকেট ইব্রাহীম হোসেন চৌধুরী বাবুলসহ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

 

অবস্থান কর্মসূচিতে বক্তারা বলেন, সিআরবি রক্ষায় আমরা টানা ৪৮৩ দিন আন্দোলন করেছি। হাসপাতালের নামে সিআরবি ধ্বংসের ‘ষড়যন্ত্র’ রুখে দিয়েছি। নাগরিক সমাজ, চট্টগ্রামের একজন সদস্য বেঁচে থাকতেও সিআরবিতে বাণিজ্যিক কোনো কর্মকা- হতে দেওয়া হবে না। জীবন দিয়ে হলেও সিআরবি নিয়ে যে কোনো ষড়যন্ত্র রুখে দেওয়া হবে।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn