মে ২০, ২০২৪ ২:৪০ পূর্বাহ্ণ

খালেদা জিয়াকে বিদেশ পাঠাতে ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম

চট্টলার কণ্ঠ নিউজ।

৪৮ ঘণ্টার মধ্যে অসুস্থ বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির পাশাপাশি তাকে দ্রুত বিদেশে পাঠনোর আল্টিমেটাম দিয়েছেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন খালেদার সর্বশেষ শারীরিক অবস্থা জানাতে গিয়ে সমাবেশে সরকারের কাছে এই সময়সীমা বেঁধে দেন তিনি। গতকাল বিকালে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর দাবিতে এই সমাবেশ হয়।

তিনি বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া অত্যন্ত অসুস্থ। এত অসুস্থ যে এখন তার চিকিৎসকরা বলেছেন যে, অবিলম্বে বিদেশে যদি তার চিকিৎসা না করা হয়… বাংলাদেশে তার সেই চিকিৎসা সম্ভব নয়। তা না হলে তাকে বাঁচানো দুষ্কর হয়ে যাবে। আমি যখন চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়েছি তখন তারা বলেছেন, আপনাদের যদি কিছু করার থাকে তাহলে করেন দেশনেত্রীর শারীরিক অবস্থা ভালো নয়। আজকে পরিষ্কার করে বলতে চাই, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে মুক্তি দিতে হবে এবং তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠাতে হবে। ‘অন্যথায় ম্যাডামের কিছু হলে তার সব দায়–দায়িত্ব আপনাদের নিতে হবে’ বলে হুঁশিয়ারিও দেন তিনি। খবর বাংলানিউজের।

মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা জনগণকে সঙ্গে নিয়ে এই কথাটা স্পষ্ট করে বলতে চাই, এই অবৈধ ক্ষমতা দখলকারী সরকারকে বলতে চাই, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে অবিলম্বে মুক্তি দিয়ে তাকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে উন্নত হাসপাতালে প্রেরণ করুন। এক্ষেত্রে যদি কোনো ক্ষতি হয় তাতে নেত্রীর ক্ষতি হবে না, তার পরিবারের ক্ষতি হবে না, এই বাংলাদেশের বড় ক্ষতি হবে। শুধু বাংলাদেশ নয়, এই এশিয়া উপমহাদেশে যে ক’জন নেতানেত্রী গণতন্ত্রের জন্য সংগ্রাম করছেন তাদের কয়েকজনের মধ্যে আমাদের নেত্রী আছেন।

বিদেশে যেতে হলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করতে হবে। আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের এ ধরনের বক্তব্যের জবাবে ফখরুল বলেন, এসব ছলচাতুরি করে কোনো লাভ নেই। আবেদন করেননি। পরিবার থেকে চিঠি দেওয়া হয়েছিল। সেই চিঠিতে তার মুক্তির কথা বলা হয়েছিল। একইসঙ্গে তাকে চিকিৎসার জন্য বাইরে যাওয়ার কথা বলা হয়েছিল। আপনারা এখন বেমালুম চেপে গিয়ে মিথ্যা কথা বলছেন। আমি বলব, আপনাদের শুভ বুদ্ধির উদয় হোক। গণতন্ত্রের মাতাকে মুক্তি দিয়ে এখন প্রমাণ করেন যে, আপনারা গণতন্ত্রের কিছুটা হলে বিশ্বাস করেন।

৭৮ বছর বয়সী খালেদা জিয়া লিভার, ফুসফুস ও হৃদরোগে ভুগছেন। ৯ আগস্ট অসুস্থ অবস্থায় তাকে এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অধ্যাপক শাহাবুদ্দিন তালুকদারের নেতৃত্বে ১৯ সদস্যের একটি মেডিকেল বোর্ডের অধীনে চিকিৎসাধীন আছেন তিনি।

মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে সমাবেশে আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীসহ নেতৃবৃন্দ বক্তব্য দেন।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn