ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২৪ ২:৪০ পূর্বাহ্ণ

দুর্গাপূজায় হামলার সুযোগ দেওয়া হবেনা বললেন সিএমপি কমিশনার

ইমরান নাজির

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজায় চার স্তরবিশিষ্ট নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার (সিএমপি) কৃষ্ণ পদ রায়। রোববার (৮ অক্টোবর) দুপুরে এক ব্রিফিংয়ে তিনি এ তথ্য জানান।

জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে দুর্গাপূজায় হামলা করে কাউকে বিশৃঙ্খলা করার সুযোগ নিতে দেওয়া হবে না বলে জানিয়ে সিএমপি কমিশনার বলেন, পূজায় হামলার বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্য নেই। তবে হামলা হলে কীভাবে মোকাবিলা হবে তার নির্দিষ্ট পরিকল্পনা রয়েছে। আমরা আগের অভিজ্ঞতা থেকে এটি প্রতিহত করব। নির্বাচনের আগে কাউকে বিশৃঙ্খলা করার সুযোগ নিতে দেওয়া হবে না।

এসময় তিনি বলেন, পূজায় চার স্তরবিশিষ্ট নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে। মহানগর এলাকায় দেড় হাজার ফোর্স মোতায়েন থাকবে। সার্বিকভাবে সুষ্ঠুভাবে পূজা উদযাপন করতে আমরা বদ্ধপরিকর।

পূজা মন্ডপে দর্শণার্থী প্রবেশের সুবিধার্থে মহিলা ও পুরুষদের জন্য আলাদা আলাদা প্রবেশ ও বহির্গমন পথের ব্যবস্থাকরণের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সভায় নিরাপত্তার স্বার্থে বড় বড় প্রতিটি পূজা মন্ডপে সিসি টিভি ক্যামেরা স্থাপন, মেটাল ডিটেক্টর, ফায়ার এক্সটিংগুইশার ও জেনারেটরের ব্যবস্থা রাখার জন্য নেতৃবৃন্দের প্রতি অনুরোধ জানানো হয়।

তদুপরি আজান ও নামাজের সময় মন্ডপের সাউন্ড সিস্টেম সাময়িকভাবে বন্ধ রাখার জন্য সকলের প্রতি বিনীত অনুরোধ জানানো হয়। শারদীয় দুর্গাপূজা উদযাপনকালীন সমগ্র মহানগরীতে মন্ডপ কেন্দ্রীক মাদক, ছিনতাই এবং ইভটিজিং প্রতিরোধে পুলিশি অভিযান কার্যক্রম জোরদার, টহল বৃদ্ধি, সাদা পোশাকে গোয়েন্দা নজরদারি এবং উর্ধ্বতন অফিসার কর্তৃক নিয়মিতভাবে প্রতিটি পূজা মন্ডপ পরিদর্শনের মাধ্যমে নিরাপত্তা প্রদানে সর্বোচ্চ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে কমিশনার মহোদয় সকলকে আশ্বস্ত করেন। তাছাড়াও পূজা মন্ডবের আশেপাশে অবৈধভাবে গাড়ি পার্কিং, মেলা, রাস্তার উপর দোকান-পাট না বসানোর জন্য নগরবাসীর সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করেন এবং জরুরি সেবা পেতে ৯৯৯ যোগাযোগ করার জন্য আহবান জানান।

এসময় সেখানে আরো উপস্থিত ছিলেন সিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন ও অর্থ) এম এ মাসুদ; অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) আবদুল মান্নান মিয়া, বিপিএম-সেবা; উপ-পুলিশ কমিশনার (সদর) মোঃ আব্দুল ওয়ারীশ সহ পুলিশের অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn