ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২৪ ১১:২১ পূর্বাহ্ণ

পেকুয়াতে হত্যা মামলার আসামিকে কুপিয়ে হত্যা

রহিম উল্লাহ উপল।

কক্সবাজারের পেকুয়ায় জয়নাল হত্যা মামলার অন্যতম আসামী আবু ছৈয়দকে(৪০) কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এসময় তার পা কেটে নিয়ে গেছে সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায় আরও চারজন আহত হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার (১০ অক্টোবর) বিকেল ৫টার দিকে উপজেলার মগনামা ইউনিয়নের আফজলিয়া পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আবু ছৈয়দ একই এলাকার মৃত বদিউর রহমানের ছেলে। অন্য আহতেরা হলেন, আবু ছৈয়দের স্ত্রী বুলবুল আক্তার (৩৪), তাঁর সম্বন্ধী (স্ত্রীর বড় ভাই) খোকন (৪০), একই এলাকার আবদুল মজিদের স্ত্রী শাকিলা (৩৩) ও ছেলে এনাম (১৭)।

আহতদের স্থানীয়রা উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় আবু ছৈয়দকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়। হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যায় আবু ছৈয়দ। খবরটি নিশ্চিত করেছে নিহতের মামা আবদুর রহিম।

পুলিশ জানায়, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে দুইজনকে আটক করা হয়েছে। তারা হলেন আফজালিয়া পাড়ার আনোয়ার হোসেনের ছেলে মহিউদ্দিন (২৬) ও কামাল হোসেনের ছেলে জয়নাল আবেদীন জনু (৩৫)।

ফোনালাপে জানতে চাইলে আবু ছৈয়দের শাশুড়ি মোবারেকা বেগম চট্টলার কন্ঠকে  বলেন, “আবু ছৈয়দ চিংড়ি ঘের থেকে দুপুরে খাবার খেতে তার বাড়িতে আসে। সে আমার বাড়িতে আসার খবর পেয়ে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা পাশের আলী আকবরের বাড়িতে অবস্থান নেয়। বিকেলের দিকে বাড়িতে হানা দেয় তারা। এসময় মৃত রুস্তম আলীর ছেলে আলী আকবর, আনোয়ার হোসেন, নুরুল ইসলামের ছেলে নেজাম উদ্দিন, নুর মুহাম্মদের ছেলে ইউনুস, আনিস, মৃত নুরুন্নবীর ছেলে আনসার, ছোটন, আমির হোসেন, শাহাব উদ্দিন, শাহাব উদ্দিনের ছেলে তৈয়ব, ছিদ্দিক আহমদের ছেলে আরকান, কামাল হোসেনের ছেলে জয়নাল আবেদীন ওরফে জনু, আনোয়ার হোসেনের ছেলে গিয়াস উদ্দিন ওরফে সোনা মিয়াসহ ১৫-২০ জনের সন্ত্রাসীরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে বাড়িতে ঢুকে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে। এক সময় প্রাণ বাঁচাতে আবু ছৈয়দ ঘরের খাটের নিচে ঢুকে পড়লে সেখান থেকে তাকে টেনে-হিঁচড়ে বের করে হাত-পা চেপে ধরে কুপিয়ে ডান পা শরীর থেকে আলাদা করে ফেলে। এসময় কাটা পা নিয়ে সন্ত্রাসীরা চলে যায় বলে জানায় তার স্বজনরা।”

হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখমের চিহ্ন রয়েছে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মগনামা ইউপি চেয়ারম্যান ইউনুছ চৌধুরী চট্টলার কন্ঠকে  জানান, নিহত আবু ছৈয়দ জয়নাল হত্যা মামলায় জামিন নিয়ে বেশ কিছুদিন আগে এলাকায় আসে। আজ দুপুরে তার
শ্বশুরবাড়িতে গেলে নিহত জয়নালের আত্মীয়-স্বজনরা তার শ্বশুরবাড়ি ঘেরাও করে তাকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করেছে। এমনকি হত্যাকারীরা তার একটি পাও কেটে নিয়ে গেছে।

হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে জানতে চাইলে পেকুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ওমর হায়দার বলেন, “খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। ইতিমধ্যে ২ জন অভিযুক্তকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। ঘটনার সাথে জড়িতদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।”

উল্লেখ্য যে , ২০২১ সালের ২ মে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে মগনামায় কুপিয়ে হত্যা করা হয় আফজলিয়া পাড়ার জয়নাল আবেদীনকে। এ হত্যা মামলার এজাহারভুক্ত ৩নং আসামী ছিলেন আবু ছৈয়দ। জয়নাল হত্যা মামলায় জেল খেটে ছয় মাস আগে জামিনে বের হন আবু ছৈয়দ। জয়নাল হত্যার জেরেই আবু ছৈয়দকে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করছেন স্থানীয়রা।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn