ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২৪ ৩:৩২ পূর্বাহ্ণ

রাঙ্গুনিয়ায় বাসে আগুন ও ভাঙচুর করেছে দুর্বৃত্তরা

রাঙ্গুনিয়া প্রতিনিধি।

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলায়  ট্রাকে আগুন দেয়ার পর এবার দাঁড়িয়ে থাকা বাসে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বাসগুলো কাপ্তাই সড়কের পরিবহন সংস্থা এবি ট্রাভেলসের মালিকানাধীন। খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

আজ বৃহস্পতিবার ভোররাত ৪ টার দিকে উপজেলার চন্দ্রঘোনা-কদমতলী ইউনিয়নের বনগ্রাম গণবিদ্যালয় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এবি ট্রাভেলসের অন্যতম পরিচালক রাসেল চৌধুরী জানান, তাদের বাসগুলো বরাবরের ন্যায়চন্দ্রঘোনা গণবিদ্যালয়ের সামনের নির্ধারিত স্থানে রাখা হয়। ভোররাত ৩টা থেকে ৪টার মধ্যে ১০/১৫ জন মুখোশধারী দেশীয় অস্ত্রহাতে সেখানে হামলা চালায়।

তারা প্রথমে একটি বাসে পেট্টোল দিয়ে আগুন লাগিয়ে দেয়া হয়। এছাড়া ভাংচুর করা হয় আরও দুটি বাস। এরপর তারা পাশের পাহাড় দিয়ে পালিয়ে যায়। ভাগ্যক্রমে বাসের ভেতর থাকা ৪ জন স্টাফ কোনরকম প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন। ক্ষতিগ্রস্ত বাসগুলো হল চট্টমেট্টো ১৪-১৭৬৬, ১৪-১৯৪৩ এবং ১৪-১৮১২।

জানতে চাইলে ফায়ার সার্ভিসের রাঙ্গুনিয়া স্টেশন কর্মকর্তা মো. কামরুজ্জামান সুমন চট্রলার কণ্ঠকে  কণ্ঠকে  বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ঘন্টাখানেকের চেষ্ঠায় বাসের আগুন নেভানো হয়। এবি ট্রাভেলস নামে ওই বাসসহ একই নামে আরো দুটি বাস ভাংচুর করা হয়। ওই স্থানে বাসগুলো রাখা ছিল। তবে বাসে কোনো লোকজন ছিলনা।

এ বিষয়ে রাঙ্গুনিয়া থানার ওসি চন্দন কুমার চক্রবর্ত্তী বলেন, ঘটনাস্থলে কাউকে পাওয়া যায়নি। এই ঘটনায় থানায় মামলা হবে।

তার পূর্বে  মঙ্গলবার ভোররাতে একই ইউনিয়নের আধুরপাড়া এলাকায় পাথর বোঝাই দুটি ট্রাকে আগুন ও  পোমরা ইউনিয়নের শান্তিরহাটে মোটরসাইকেল পুড়ে দেয় দুবৃর্ত্তরা। দুটি ঘটনায় থানায় মামলা হয়।

জানতে চাইলে ফোনালাপে চন্দ্রঘোনা-কদমতলী ইউপি চেয়ারম্যান এবং চট্টগ্রাম উত্তরজেলা আওয়ামী লীগ নেতা ইদ্রিস আজগর বলেন, বিএনপি-জামায়াত চক্র এই ঘটনা ঘটিয়েছে। সাধারণ মানুষের জানমাল রক্ষায় এখন ২৪ ঘন্টা মাঠে থাকবে আওয়ামী নেতৃবৃন্দ।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn