মে ২০, ২০২৪ ২:১২ পূর্বাহ্ণ

লোহাগাড়ায় রোহিঙ্গা যুবকের আত্মহত্যা

কলিম উল্লাহ।

পারিবারিক কলহের জেরে গলায় ফাঁস দিয়ে লোহাগাড়ায় এক রোহিঙ্গা যুবকের মৃত্যু হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার ভোরে চরম্বা ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড বাইয়ার পাড়া নুরের দোকান লক্ষিজোড়া এলাকায় সিরাজের খামার বাড়িতে এই ঘটনা ঘটেছে।

আত্মহত্যাকারী  রোহিঙ্গা যুবক মোহাম্মদ জাবেদ (২৩) মায়ানমারের মোহাম্মদ সুলতানের পুত্র ও চরম্বা ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড বাইয়ার পাড়া এলাকার মৌলভিপাড়া নুরের দোকান লক্ষিজোড়া এলাকায় সিরাজের খামার বাড়ির কেয়ারটেকার অটোরিকশা চালক মোহাম্মদ ছিদ্দিকের জামাতা।

পারিবারিক কলহের কথা অস্বীকার করে নিহতের স্ত্রী মুন্নী আক্তার দৈনিক আজাদীকে জানান, গত আড়াইমাস পূর্বে তার সাথে রোহিঙ্গা যুবক জাবেদের বিয়ে হয়। সে বান্দরবানে একটি মৎস্য প্রজেক্টের কর্মচারি হিসেবে কর্মরত ছিল।

ভোরে ঘুম থেকে উঠে তাঁর মা খুরশিদা বেগম বাড়ির সামনে গাছের ডালে গলায় লুঙ্গি পেঁছানো অবস্থায় জাবেদের ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পেয়ে স্থানীয় মেম্বার ও গ্রাম পুলিশকে অবহিত করা হয়।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে স্থানীয় ইউপি সদস্য মোহাম্মদ শওকত ওসমান জানান, বৃহস্পতিবার ভোরে গলায় ফাঁস দিয়ে রোহিঙ্গা যুবকের মৃত্যুর খবর পেয়ে পুলিশকে জানালে লোহাগাড়া থানা পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থল উপস্থিত হয়ে লাশ উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

চট্টলার কণ্ঠকে লোহাগাড়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাশেদুল ইসলাম বলেন, রোহিঙ্গা যুবকের মৃত্যু বিষয়ে খোঁজ পেয়ে এসআই মোজাম্মেল হক সঙ্গীয় পুলিশ ফোর্স ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে মরদেহ উদ্ধার করেছে। প্রাথমিক তদন্তে স্থানীয়রা জানিয়েছে পারিবারিক কলহের জেরে এই অপমৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn