ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২৪ ১২:০১ অপরাহ্ণ

কক্সবাজারে বিদেশি পর্যটককে ছুরিকাঘাত করে সর্বস্ব ছিনতাই

রহিম উল্লাহ উপল

কক্সবাজার শহরে এক বিদেশি পর্যটককে ছুরিকাঘাত করেছে ছিনতাইকারীরা। এসময় তার কাছ থেকে নগদ টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে যায় তারা।

শুক্রবার (১ ডিসেম্বর) রাতে সাড়ে ১১টায় শহরের কলাতলীর ডলফিন মোড়ে এ ঘটনা ঘটে।

আহত পর্যটকের নাম আব্দুল খালেক। তিনি সৌদি আরবের নাগরিক বলে জানিয়েছেন তার সঙ্গে থাকা দোভাষী ফরিদপুরের বাসিন্দা সৌদি প্রবাসী রাকিব।

রাকিব জানান, দুটি মোটর সাইকেলে করে ছয় জন দুবৃর্ত্ত এসে খালেককে ছুরিকাঘাত করে মোবাইল ও নগদ টাকা নিয়ে দ্রুত স্থান ত্যাগ করে। এসময় তার মোবাইলও দুর্বৃত্তরা নিয়ে যায়।

কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন আহত পর্যটক খালেক। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হাসপাতালের এক চিকিৎসক জানান, আহত ব্যক্তিকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তবে রক্তপাত বেশি হয়েছে।

হাসপাতালে কথা হয় আহত পর্যটকের সঙ্গে থাকা রাকিবের বন্ধু ঢাকার মিরপুরের বাসিন্দা মম নূরের সঙ্গে। তিনি জানান, ডলফিন মোড়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে চা খেয়ে আড্ডা দিচ্ছিলেন তারা। অন্য এক পাশে ছিলেন আহত পর্যটক খালেক আর রাকিব। তাদের আত্মচিৎকারে দৌড়ে এসে দেখেন ছুরিকাহত হয়ে পড়ে আছেন খালেক। তখন তারা খালেককে হাসপাতালে নিয়ে আসেন।

এদিকে রাতেই ঘটনাস্থলে পরিদর্শনে যান পুলিশ সুপার মাহফুজুল ইসলাম। এসময় তিনি দ্রুত এ ঘটনার কারন উদঘাটন করা হবে বলে জানান।

স্থানীয়রা জানান, কক্সবাজার শহরের আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে জেলা পুলিশের পাশাপাশি ট্যুরিস্ট পুলিশের বিশাল ইউনিট রয়েছে। তারপরও সামান্য এক থেকে দুই কিলোমিটারের এলাকাকে (বিশেষ করে পর্যটন স্পটখ্যাত কলাতলী) তারা ছিনতাইমুক্ত করতে পারেনা। তাই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন সচেতন মহলের।

এলকাবাসীর দাবি, ট্যুরিস্ট পুলিশকে বেশিরভাগ সময় শোডাউন দিতেই দেখা যায়, সমুদ্রসৈকত ও হোটেল মোটেল জোনে অপরাধ নিয়ন্ত্রণে তাদের ভূমিকা খুব একটা দেখা যায় না। এই সুযোগে ছিনতাইসহ অন্যান্য অপরাধ বাড়ছে।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn