ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২৪ ১১:৫৯ পূর্বাহ্ণ

১৬ আসনের নির্বাচন সামগ্রী চট্টগ্রাম এসে পৌঁছালো

ইমরান নাজির।

আগামী ৭ জানুয়ারি নির্বাচনের প্রস্তুতি হিসেবে চট্টগ্রাম জেলার ১৬ সংসদীয় আসনে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাদের(উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা) কাছে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে সব নির্বাচনি সরঞ্জাম (ব্যালট পেপার ও স্ট্যাম্প প্যাড ছাড়া)।

শুক্রবার (২৯ ডিসেম্বর) সকালে নগরীর এম এ আজিজ স্টেডিয়ামের জিমনেশিয়াম হল থেকে ট্রাকে করে এসব নির্বাচনী সরঞ্জাম পুলিশ ও আনসার-ভিডিপির পাহারায় পাঠানো হয়।

nagad

সরেজমিনে দেখা গেছে, পুলিশ ও আনসার ভিডিপি সদস্যদের পাহারায় ট্রাকে তোলা হচ্ছে নির্বাচনী সরঞ্জাম। এর মধ্যে আছে স্বচ্ছ ব্যালট বক্স, চটের থলি, স্ট্যাপলার মেশিন ও পিন, অমোচনীয় কালির কলম, রাবারের সিলমোহর, মার্কিং সিল, স্ট্যাম্প প্যাড, গালা, চার্জার লাইট, মনিহারি সামগ্রীর মধ্যে বলপয়েন্ট কলম, সাদা কাগজ, কার্বন কাগজ, ছুরি, সুই বড়, সুতার বল, মোমবাতি, দিয়াশলাই, গাম ও স্ট্যাম্প প্যাডের কালি।

নির্বাচন কমিশন অফিসের কর্মকর্তারা শ্রমিকদের সব দেখিয়ে দিচ্ছেন। আর শ্রমিকরা কাঁধে করে এসব সরঞ্জাম নিয়ে তুলে দিচ্ছেন গাড়িতে। সকাল সাড়ে ১০টা থেকে বিকেল তিনটা থেকে পর্যন্ত চলে এ কর্মযজ্ঞ।

চট্টগ্রাম জেলার সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা এনামুল হক চট্রলার কণ্ঠকে জানান, সকালে থেকে এম এ আজিজ স্টেডিয়ামসংলগ্ন জিমনেসিয়াম থেকে প্রতিটি নির্বাচনি এলাকার সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাদের কাছে নির্বাচনি সরঞ্জাম পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারা পুলিশ প্রশাসনের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ভোট পর্যন্ত এসব সরঞ্জামের কঠোর নিরাপত্তায় রাখবেন। এছাড়া ব্যালট পেপার ও স্ট্যাম্প প্যাড যাবে নির্বাচনের দিন সকালে। তবে দুর্গম এলাকাগুলোতে ব্যালট পেপার আগেভাগেই পাঠিয়ে দেওয়া হবে।

তিনি আরও জানান, চট্টগ্রাম জেলার মধ্যে সন্দ্বীপ উপজেলার উড়িরচরসহ আরও দু’টি ভোট কেন্দ্রে আগেই ব্যালট পেপার পাঠিয়ে দেওয়া হবে। ব্যালট পেপার এখনও ঢাকা থেকে আসেনি।

আগামী ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সকাল আটটা থেকে বিকাল চারটা পর্যন্ত একটানা ভোট গ্রহণ চলবে। চট্টগ্রামের ১৬ আসনে এবার মোট ভোটার ৬৩ লাখ ১৪ হাজার ৩৯৭ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৩২ লাখ ৮৯ হাজার ৫৯০ জন ও নারী ৩০ লাখ ২৪ হাজার ৭৫১ জন। মোট ভোটকেন্দ্রের সংখ্যা ২ হাজার ২৩টি। বুথের সংখ্যা ১৩ হাজার ৭৩২টি।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn