ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২৪ ১১:১৮ পূর্বাহ্ণ

বিষ প্রয়োগে ১৯ হাজার ফুলকপি নষ্ট করল দুর্বৃত্তরা

তারিকুল ইসলাম

সীতাকুণ্ডে আগাছা দমনের ওষুধ ছিটিয়ে দিয়ে ১৯ হাজার ফুলকপি নষ্ট করে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। সীতাকুণ্ড উপজেলার বাশঁবাড়িয়া ইউনিয়নের বোয়ালিয়াকূল সাগর উপকূলের দুই কৃষকের ৫ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে । ক্ষতিগ্রস্ত দুই কৃষক পরিবারে প্রবল অর্থনৈতিক অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।

রোববার সরেজমিনে দেখা যায়, সারি-সারি ফুলকপির গাছের পাতা জ্বলে লালচে আকার ধারণ করেছে। জমির পাশে মাথায় হাত দিয়ে অসহায়ের মতো বসে আছে কৃষক আবু বক্কর সিদ্দিক ও দিদারুল আলম। সিভয়েস প্রতিনিধিকে ঘটনার বর্ণনা দিতে গিয়ে বারবার চোখ ভিজে যাচ্ছিল দুই কৃষকের।

স্থানীয়রা জানান, গত কয়েকদিন আগে রাতের আধাঁরে আবু বক্কর সিদ্দিক ও দিদারুল আলম নামের দুই কৃষকের ফুলকপি ক্ষেতে কে বা কারা আগাছা দমনের ঔষধ ছিটিয়ে দেয়। এর কয়েকদিন পর থেকে গাছগুলো ধীরে ধীরে মরতে শুরু করে। প্রথম পর্যায়ে কোন ছত্রাকের আক্রমণে গাছগুলো মারা যাচ্ছে ধারণা করে প্রতিকার হিসাবে কয়েক হাজার টাকার ঔষধ ছিটানো হয়। কোন ওষুধে কাজ হচ্ছেনা এবং আশপাশের অন্য গাছ ঠিক থাকায় তারা বুঝতে পারে এখানে আগাছা নাশক ওষুধ ছিটানো হয়েছে।

আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন, আমার জমিতে ১০ হাজার ফুলকপি ও ২ হাজার ওলকপি গাছ ছিল। গাছগুলো ফসল দেওয়ার সময় হয়ে গিয়েছে। কয়েকদিনের মধ্যে অন্তত সাড়ে ৩ লাখ টাকার ফুলকপি ও ওলকপি বিক্রি করতে পারতাম। এই ক্ষেতে এ পর্যন্ত ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। বেশিরভাগ এনজিওর ঋণ ও স্থানীয়ভাবে ধার করা টাকা। এখন আমি দিশেহারা। কিভাবে ধারকর্জ পরিশোধ করব, কিভাবে সংসার চালাব?

অপর কৃষক দিদারুল আলম বলেন, সাগর পাড়ের মাটি লবণাক্ত হওয়ায় এখানে ফসল ফলানো অনেক কষ্টকর। আমাদের নিজের কোন জমি না থাকাতে বাধ্য হয়ে এখানে এসে চাষ করতে হয়। কিছুদিন আগে আমার একমাত্র মাছের প্রজেক্টে বিষ ঢেলে সবগুলো মাছ মেরে ফেলেছে কেউ। এখন ৭ হাজার ফুলকপির গাছ জ্বালিয়ে দিল। আমার সবটাই ঋণের টাকা। এখন আমি ঋণ শোধ করব কিভাবে, পরিবার নিয়ে খাব কি? বাড়িতে তিনটি মেয়ের মুখের দিকে তাকালে আমার খালি কান্না আসতেছে। কারো সাথে শত্রুতা থাকলে আমাকে মেরে ফেলত আমার ক্ষেতের কেন ক্ষতি করল?

জানতে চাইলে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হাবিবুল্লাহ এই প্রতিবেদককে বলেন, বিষ প্রয়োগে ফসল নষ্ট করা একটি চরম গর্হিত কাজ। ফসল কৃষকের কাছে সন্তানের মতো। ফসলের কোন ক্ষতি হলে কৃষকদের অনেক কষ্ট হয়। এটা অত্যন্ত ঘৃণিত ও নিন্দনীয় কাজ।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn