ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২৪ ১২:০৬ অপরাহ্ণ

পাকিস্তানের নির্বাচন নিয়ে যা বললেন মালালা

গত বৃহস্পতিবারে অনুষ্ঠিত পাকিস্তানের জাতীয় নির্বাচনের ভোটগ্রহণের পূর্ণাঙ্গ ফল এখনও প্রকাশ করেনি দেশটির নির্বাচন কমিশন। নজিরবিহীন এ বিলম্বকে অস্বাভাবিক বলছেন বিশ্লেষকরা। একইসঙ্গে ব্যাপক কারচুপির অভিযোগ উঠেছে তেহরিক ই ইনসাফের (পিটিআই) পক্ষ থেকে।

এমন পরিস্থিতিতে নিজ দেশের নির্বাচন নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে এক পোস্ট দিয়েছেন শান্তিতে নোবেলজয়ী মালালা ইউসুফজাই। খবর জিও নিউজের। এতে জনগণের রায় মেনে নিতে ও পাকিস্তানের গণতন্ত্রকে অগ্রাধিকার দিতে নির্বাচিত রাজনীতিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

nagad
nagad

শুক্রবার (১০ ফেব্রুয়ারি) দেওয়া পোস্টে মালালা লিখেছেন, ‘পাকিস্তানে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন প্রয়োজন, যেখানে ভোট গণনার ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা ও ফলের প্রতি শ্রদ্ধা থাকবে। আমি বরাবরের মতো বিশ্বাস করি, আমাদের অবশ্যই ভোটারদের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাতে হবে। আশা করি আমাদের নির্বাচিত রাজনীতিকরা, সরকার বা বিরোধী দল—যে দলেরই হোক না কেন, পাকিস্তানের জনগণের জন্য গণতন্ত্র ও সমৃদ্ধিকে অগ্রাধিকার দেবেন। ’

পাকিস্তানের এবারের নির্বাচনে জাতীয় ও প্রাদেশিক পরিষদ মিলিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন ১৭ হাজারের বেশি প্রার্থী। ভোটার সংখ্যা ১২ কোটি ৮০ লাখ। তাদের ভোটেই নির্ধারিত হচ্ছে আগামী পাঁচ বছর পরমাণু শক্তিধর এই দেশটির শাসনক্ষমতায় কারা থাকবেন।

বৃহস্পতিবার ভোট অনুষ্ঠানের পর ২৬৫টি আসনের মধ্যে ২৫৫টির ফল ঘোষণা করেছে পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন (ইসিপি)। ইসিপি ঘোষিত ফলাফল অনুযায়ী, নওয়াজ শরিফ কিংবা বিলাওয়াল ভুট্টোর চেয়ে এখনো অনেকটা এগিয়ে রয়েছেন ইমরানসমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা।

স্বতন্ত্র প্রার্থীরা জিতেছে ১০০টি আসনে যাদের বেশিরভাগই (৯৪) পিটিআই সমর্থিত। এছাড়া নওয়াজ শরীফের পিএমএল-এন ৭৭টি ও পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি) ৫৪টি আসনে জয় পেয়েছে। পিছিয়ে থাকলেও জোট করে সরকার গঠনের কথা জানিয়ে দিয়েছে দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে থাকা নওয়াজের পিএমএল-এন ও বিলাওয়ালের পিপিপি।

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn